গিট : অফলাইন রিপোজিটরি নিয়ে কাজ করা-পর্ব-৩

অফলাইনে গিট রিপোজিটরি ব্যবহার করার জন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরন করুন

১. cd ব্যবহার করে আপনার রিপোজিটরিতে প্রবেশ করুন। ধরুন, আপনি যদি একটি routine management system তৈরি করতে চান এবং আপনার রিপোজিটরি ফোল্ডারের নাম যদি rms হয় তাহলে cd কমান্ড দিয়ে rms ডিরেক্টরিতে প্রবেশ করুন।

২. এখন git init কমান্ড লিখুন। এতে করে আপনার রিপোজিটরিটি গিট ব্যবহারের উপযোগি হবে এবং .git নামে একটি লুকানো ফোল্ডার তৈরি হবে। আপনার রিপোজিটরিতে .git ফোল্ডারটি তৈরি না থাকলে আপনি গিটের কমান্ডগুলো কাজে লাগাতে পারবেন না।

৩. আপনার রিপোজিটরিটি এখন কাজের উপযুক্ত হয়েছে। আপনি এখন এতে যে কোন ধরনে ফাইল, ফোল্ডার তৈরি, সম্পাদনা ও মুছে ফেলতে পারবেন।

৪. আপনার রিপোজিটরি প্রত্যেকবার স্থিতিশীল(stable) অবস্থায় পৌছলে সেগুলো Staging Area তে পাঠাতে হবে। Staging area তে পাঠানোর মানে হচ্ছে আপনি যে যে ফাইলগুলোকে নিশ্চিতভাবে রিপোজিটরিতে অন্তর্ভুক্ত করবেন তার তালিকা তৈরি করা। সে জন্য আপনাকে git add কমান্ড ব্যবহার করতে হবে। যদি আপনি বর্তমান সবগুলো ফাইলকে Staging area তে সংযুক্ত করতে চান তবে আপনাকে git add * কমান্ড ব্যবহার করতে হবে। যদি একটি ফাইকে সংযুক্ত করতে চান তবে git add কমান্ডের পর ফাইলের নাম লিখতে হবে। ধরুন আপনি test.txt নামে একটি ফাইল তৈরি করেছেন যা আপনি Staging area তে পাঠাতে চান। তখন আপনার কমান্ড হবে  git add test.txt

৫. সর্বশেষ আপনাকে যে কাজটি করতে হবে তা হচ্ছে, আপনার staging area তে সংযুক্ত করা ফাইলগুলোকে মূল রিপোজিটরির সাথে নিশ্চতভাবে সংযুক্ত করা। সে জন্য আপনাকে git commit কমান্ডটি ব্যবহার করতে হবে। আপনাকে প্রত্যেক commit এর সাথে একটি বার্তা সংযুক্ত করে দিতে হবে। তখন আপনার সম্পূর্ণ কমান্ডটি হবে-

git commit -a -m “Your Message”

One response to “গিট : অফলাইন রিপোজিটরি নিয়ে কাজ করা-পর্ব-৩”

Leave a Reply

Your email address will not be published.